করতোয়ার হেড অফিসে মীর সাব্বিরের অজানা কিছু কথোপকথন

করতোয়া এর ঢাকা অফিছে মীর সাব্বির ‘কথা হোক তার সাথে’ বিভাগ এর লাইভ আড্ডায় ছিলেন প্রাণ বন্ত
দৈনিক করতোয়া’র সম্পাদক ও প্রকাশক মোজাম্মেল হকের আহ্বানে ‘কথা হোক তার সাথে’ বিভাগে অংশ নেয়ার জন্য, রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা অফিসে এসেছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা, নাটক ও চলচ্চিত্র পরিচালক মীর সাব্বির।
তার আসবার মধ্য দিয়ে ‘কথা হোক তা র সাথে’ বিভাগের মাধ্যমে করতোয়া এর ফেসবুক পেইজ ও ইউটিউব চ্যানেলে লাইভ আড্ডা শুরু হলো। এ অনুষ্ঠান উপস্থাপনা ও পরিচালনা করেছেলেন নন্দিত উপস্থাপিকা অধরা জাহান।
অনুষ্ঠানটি শুরু হয় বিকেল প্রায় সাড়ে ছয় টায়। প্রায় এক ঘন্টাব্যাপী এই অনুষ্ঠানে মীর সাব্বির তার প্রথম নির্মিত সিনেমা ‘রাত জাগা ফুল’সহ আরো বিভিন বিষয়ে কথা বলেন। ‘কথা হোক তার সাথে’ বিভাগটি ২০০৬ সাল থেকে পরিচালিত হয়ে আসছে।
করতোয়া বিনোদন বিভাগের সম্পাদক অভি মঈনুদ্দীনের সার্বিক সহযোগিতাই। এবারই প্রথম তার পরিচালনায় সরাসরি অনুষ্ঠান প্রচার হলো।প্রথম অনুষ্ঠানেই মীর সাব্বিরের মতো গুনী একজন অভিনেতা, পরিচালকের উপস্থিতি করতোয়ার ঢাকা অফিস ছিলো আনন্দ মখর।

চলচ্চিত্র বিষয়ক এবং আরো অন্যান্য বিষয়ে অধরার সন্দর সব প্রশ্নের উত্তর দেন মীর সাব্বির। যা করতোয়ার ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেলে সরসরি প্রচার হয়। এই অনুষ্ঠান সফল করার জন্য পূর্ণ সহযোগিতা করেছেন করতোয়া’র নির্বাহী সম্পাদক তাসলিমা হক।
করতোয়ার সবার আন্তরিকতায় মীর সাব্বির পুরোটা সময় মুগ্ধ ছিলেন। পাশাপাশি অনেক বড় মাপের অভিনেতা, পরিচালত হয়েও অতি সাধারণ, সর্বোচ্চ বিনয় প্রকাশ করেও মীর সাব্বিরও যেন মুগ্ধতার রেশ রেখে যান করতোয়ায়।
মীর সাব্বির বলেন, ‘করতোয়ার সাথে আমার পরিচিত সেই ২০০৬ সাল থেকে। তখন থেকেই এই পাঠকপ্রিয় দৈনিকটির সাথে আমি পরিচিত। আমার বিভিন্ন ধরনের খবরাখবর প্রকাশিত হয়ে আসছে তখন থেকেই।যদিও এর সময়কাল ৪৬ বছর, বলা যায় আমার বয়সের সমানই। এটা অনেক বড় বিষয়। এতোটাই বছর পাঠকপ্রিয়তা ধরে রাখাও একটা কঠিন কাজ।
পাঠকের বিশ্বস্ততা অর্জন করে করতোয়া আগামীতে আরো অনেক পাঠকপ্রিয়তা অর্জন করুক, এটাই আমার প্রত্যাশা। ধন্যবাদ মোজাম্মেল হক ভাইকে আমাকে নিমন্ত্রণ করার জন্য। ধন্যবাদ অধরা জাহানকে এতো সন্দর উপস্থাপনা করার জন্য।
সর্বোপরি ‘কথা হোক তার সাথে’ বিভাগ এবং অভি মঈনুদ্দীনের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা-সবসময় শিল্পীদের পাশে সহযোগিতার মনোভাব নিয়ে থাকার জন্য। আগামীতেও আমি এই বিভাগে আসার ইচ্ছে আছে । ধন্যবাদ করতোয়া পরিবারকে।’

অধরা জাহান আরও বলেন, কোন জাতীয় দৈনিকের এই ধরনের অনুষ্ঠানে আমার এই প্রথম অংশ গ্রহন। আমার ভীষণ ভালো লেগেছে এমন একটি আয়োজনের শুরুতে থাকতে পেরে। ধন্যবাদ অভি মঈনুদ্দীন ভাইকে।
মীর সাব্বির ভাই আমার সবগুলো প্রশ্নের এতো ঘটনমূলক উত্তর দিয়েছেন যে আমি তার কাছে থেকে অনেক কিছু শিখতে পেরেছি। আমি নিজেকে সৃমদ্ধ করার সুযোগ পেয়েছি।
বিশেষ ধন্যবাদ, কৃতজ্ঞতা জানাই শ্রদ্ধেয় মোজাম্মেল হক ভাইকে, আমাকে অনুপ্রেরণা দেয়ার জন্য। আমি করতোয়া পরিবারেরই একজন সদস্য মনে করবো এখন থেকে। আমার নিজের অনুভতির স্থান হয়ে থাকবে করতোয়া।’

উল্লেখ্য, গেলো ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ সালের শেষ সিনেমা মুক্তি পায় মীর সাব্বিরের ‘রাত জাগা ফুল’ সিনেমাটি। এর কাহিনী, সংলাপ, চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন মীর সাব্বির। দ্বিতীয় সপ্তাহেও সিনেমাটি প্রদর্শিত হচ্ছে ঢাকা ও ঢাকার বাইরে বিভিন্ন সিনেমা হলে।
মীর সাব্বির জানান, শিগগিরই বগুড়ার মধুবন সিনেমা হলে তার সিনেমাটি মুক্তি পাবে। তখন তিনি বগুড়ায় আসবেন।
সরাসরি অনুষ্ঠান শেষে দৈনিক করতোয়া’র সম্পাদকের পরিবারের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন মীর সাব্বির ও অধরা। এ সময় সম্পাদকের জ্যেষ্ঠ মেয়ে ও দৈনিক ভোরের দর্পণ’র ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নাসরিন হায়দার ও তার জামাতা নাহিদ হায়দার উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.